২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
Advertisement

ঢাকায় বিশ্ব নারী দিবস উদযাপনে উদার আকাশ পত্রিকার পাঠ উম্মোচন

নুতন ভোরের প্রতিবেদন : রাজধানীর কমিউনিটি অনকোলজি সেন্টারে পালিত হল বিশ্ব নারী দিবস উদযাপন এবং উদার আকাশ পত্রিকার পাঠ উম্মোচন। ৯ মার্চ, ২০২৩ এ, রাজধানী ঢাকার বুকে শান্তিরাজ্য, লালমাটিয়ায় বিশ্ব নারী দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হল গোলটেবিল আলোচনা এবং এক মনোরম সাংস্কৃতিক পর্ব। অত্যন্ত অর্থপূর্ণ এই আয়োজনটি আয়োজিত হয় লালমাটিয়ার কমিউনিটি অনকোলজি সেন্টারে। রৌদ্র ঝরা বিকেল হতে এই অনিন্দ্য সমাবেশের স্বতঃস্ফূর্ত ধারা বয়ে চলে প্রায় চার ঘন্টা সময় জুড়ে। ‘স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অগ্রগামী নারী’ এই স্লোগানকে সামনে রেখেই এই অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়৷ সচেতনতার আলোকে বিকেল চারটে থেকে রাত আটটা পর্যন্ত ফ্রী স্ক্রিনিং এর সুবিধাও রাখা ছিল এখানে।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

অনুষ্টানটির সভাপততিত্ব এবং বলিষ্ঠ সূচনা করেন, চেয়ারম্যান (সিওসি ট্রাস্ট) মোসারফ জাহান সৌরভ। তাঁর সাবলীল উপস্থাপনায় আলোচনার ঢেউ সঞ্চারিত হতে থাকে এক অনিন্দ্য তালে। শুরুতেই নারী স্বাস্থ্য ও নারী অগ্রগতি নিয়ে চমৎকার আলোচনা করেন, প্রশিকা মানব উন্নয়ন কেন্দ্রের চেয়ারম্যান, কবি ও কথাসাহিত্যিক রোকেয়া ইসলাম। সময়ের পরিক্রমায় যুগে যুগে নারীদের আত্মত্যাগ এবং সংগ্রামের কথা তিনি অত্যন্ত নিখুঁত ভাবে সবার সম্মুখে উস্থাপন করেন। তাঁর বক্তব্যের মূল আকর্ষণ ছিল, বিভিন্ন ধর্মে নারীদের অত্যন্ত উঁচু আসনে আসীন করা হলেও বাস্তবে সবসময়ই নারীরা মূলত নানাভাবে অবহেলিত হয়েই আসছে। নিদারুণ এই নির্মম সত্য কিছুক্ষণ সময়ের জন্য হলেও উপস্থিত সকলের হৃদয়কে গভীর ভাবে নাড়া দিয়ে যায়।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

কী করে এই নারী দিবসের সূচনা হলো, সেই নেপথ্য গাঁথাকেও সকলের সামনে তুলে ধরা হয় অতি চমৎকার ভাবে৷ মূলত নারী-পুরুষের লিঙ্গ বৈষম্যের চিরায়িত ধারাকে শক্ত ভাবে মোকাবিলা ও প্রতিহত করবার ব্যাপারে নারীদেরকে সচেতন হওয়া জরুরী বলে উপস্থিত সকল বিজ্ঞ অতিথিবৃন্দ তাদের অভিমত ব্যক্ত করেন৷ দু’ঘন্টা ব্যাপী গড়িয়ে চলা এই আলোচনা পর্বে নারী স্বাস্থ্য সচেতনতা থেকে আরাম্ভ করে নারীদের সার্বিক উন্নয়ন প্রসঙ্গে নানা সমৃদ্ধ মতবিনিময়ে আলোকিত হয়ে ওঠে। সমৃদ্ধ বক্তব্য রাখেন, বঙ্গবন্ধু ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশানের নির্বাহী চেয়ারম্যান, মুস্তারী বেগম, (সাবেক অতিরিক্ত পরিচালক, মহিলা অধিদপ্তর) রাজিয়া সুলতানা, (সাবেক উপ পরিচালক, মহিলা অধিদপ্তর) মিনা মাসরাফি, অনকোলজি সোসাইটির সম্মানিত চেয়ারম্যান ডাঃ হাবীবুর রহমান তালুকদার সহ আরো অনেকেই৷

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

সময়োপযোগী এই কথনআয়োজনের পরপরই অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে পশ্চিমবঙ্গের অত্যন্ত জনপ্রিয় পত্রিকা ‘উদার আকাশ’ এর পাঠ উম্মোচন পর্ব সমপন্ন করা হয়। উল্লেখ্য, ফারুক আহমেদ-এর সম্পাদনা আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা সংখ্যা ১৪২৯ ‘উদার আকাশ’ পত্রিকাটি ইতিমধ্যে দুই বাংলার পাঠক সমাজের কাছে দারুণ ভাবে জনপ্রিয় এবং সমাদৃত হয়ে উঠেছে। অন্যান্য বারের মত এবারেও এই পত্রিকার সংখ্যায় কুশলী কলম ধরেছেন, দুই বাংলার এক ঝাঁক নবীন প্রবীন কলমযোদ্ধারা। পত্রিকার পাঠ উম্মোচন পর্বে দুই বাংলায় ‘উদার আকাশ’ পত্রিকার জনপ্রিয়তা এবং অপরিহার্যতা সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, কবি ও কথাসাহিত্যিক রোকেয়া ইসলাম এবং লেখক ও কলামিস্ট সোনিয়া তাসনিম। অনন্য এই পত্রিকাটির অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো তাঁরা অত্যন্ত সুন্দরভাবে বিশ্লেষণ ধরেন। একই সময়ে পত্রিকাটির সাফল্যমন্ডিত জয়যাত্রা সহ বাংলাদেশের বহুল প্রচার কামনা করা হয়। উভয় বঙ্গের মানুষের ভালবাসা অর্জন করেছে ইতিমধ্যেই ‘উদার আকাশ’ পত্রিকার বিশেষ সংখ্যা ও ‘উদার আকাশ’ প্রকাশনা সংস্থার বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা গ্রন্থ।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

পরিশেষে, সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আগ মুহুর্তে পরিবেশিত গরম গরম পরোটা মাংস, মৌসুমি ফল সাথে চা চক্র পাঠ পরিক্রমা মন প্রাণ চাঙ্গা করে তুলেছিল ভীষণ ভাবে। কবিতা ছন্দ, সুললিত নৃত্য আর গানের রাগে এই দারুণ অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টেনে নেওয়া হয়।

Advertisement