১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

দূষণের ছোবলে আক্রান্ত আস্ত গ্রাম! কারখানার গেট বন্ধ করে বিক্ষোভে মহিলারাই…

সনাতন গড়াই, পশ্চিম বর্ধমান : একে তো ৪৪ ডিগ্রির কাছাকাছি তাপমাত্রা তারপর আবার কারখানার কালো ধোঁয়া আর বিষাক্ত ছায়ে ঢেকে যাচ্ছে গোটা এলাকা। বাড়ি থেকে বেরোনোই আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারখানা কর্তৃপক্ষের পাশাপশি এসব দেখেও কোন হেলদোল নেই প্রশাসনের। এই অভিযোগ তুলে বেসরকারি স্পঞ্জ আয়রন কারখানার গেট বন্ধ করে বিক্ষোভে নামলো এলাকাবাসীরা। কারখানা কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে তাদেরও ঘিরে ধরে চলে তুমুল বিক্ষোভ। ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ালো দুর্গাপুর ফরিদপুর থানার ঝাঁজরাই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পৌঁছালো দুর্গাপুর ফরিদপুর থানার পুলিশও।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

বিক্ষোভকারী প্রতিমা চক্রবর্তর অভিযোগ,”বিষাক্ত কালো ধোঁয়া আর উড়ে বেড়াচ্ছে গ্রামের ভেতর। এলার্জি থেকে নানান চর্মরোগ শ্বাসকষ্ট আর চোখের সমস্যা বেড়েই চলেছে। মুখে মাস্ক ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরোলেই একেবারেই দূষণ ছোবল মেরে ঢুকে যায় নাক মুখের ভেতর। পুকুরের জল কালো হয়েছে, ছাই পড়ে চাষের জমিও চাষ করা অযোগ্য হচ্ছে। একাধিকবার কারখানা কর্তৃপক্ষকে জানানো সত্ত্বেও কোন কাজ হয়নি। স্থানীয় দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লক প্রশাসনের আধিকারিকদের কাছেও অভিযোগ করেও কোন কাজ হয়নি। তাই তাঁরা বাধ্য হয়ে নেমেছেন বিক্ষোভে।”

 

Advertisement

 

 

Advertisement

দুর্গাপুর ফরিদপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কল্যাণ শো মন্ডল অভিযোগ স্বীকার করে বলেন,”বেশ কিছুদিন আগে থেকেই তাঁর কাছেও অভিযোগ করছিলেন স্থানীয়রা। এই আন্দোলন একেবারেই ন্যায্য। তিনি কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে দ্রুত দূষণ নিয়ন্ত্রণে আনার ব্যবস্থা করবেন বলেও আশ্বাস দেন।”বিক্ষোভের মুখে পড়ে কারখানার আধিকারিক অনিন্দ্য ভূঁইয়া আশ্বাস দেন,”দুদিনের মধ্যে এই সমস্যার সমাধান হবে।”

Advertisement