১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

স্কুলের সময় পরিবর্তনকে কেন্দ্র করে অভিভাবকদের বিভ্রান্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি : চলতি বছরের সমস্ত রেকর্ড কে হার মানিয়েছে অতিরিক্ত তাপমাত্রা।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

এত লম্বা সময় ধরে অতিরিক্ত গরম বিগত দেশ কিছু বছর ধরে লক্ষ্য করা যায়নি। এবার গরমের এই ঊর্ধ্বমুখী আচরণকে কেন্দ্র করে একটু সতর্কতা জারি করেছিল আবহাওয়া দপ্তর। বারবার করে সাবধান করা হচ্ছিল গরম পড়ার শুরু থেকে।।।

চলতি তীব্র গরমের জেরে যখন রাজ্য সরকার সোমবার থেকে সমস্ত স্কুলে স্কুলে গরমের ছুটি দিয়েছে।

Advertisement

 

 

Advertisement

সেই সময় বর্ধমানের সেণ্ট জেভিয়ার্স স্কুল কর্তৃপক্ষের অভিভাবকদের প্রতি আবেদনকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো। স্কুল সূত্রে জানা গেছে, স্কুল কর্তৃপক্ষ চলতি তীব্র গরমের জন্য স্কুলের সময়কে বিকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত্রি সাড়ে দশটা – এগারোটা নাগাদ পর্যন্ত করার প্রস্তাব দিয়েছেন স্কুলের ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক এবং স্কুলের কর্মচারীদের কাছে।

তবে এই আবেদনকে ঘিরেই শুরু হয়েছে ব্যাপক চাঞ্চল্য। স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, গরমের জন্য স্কুলের ছুটির সময়কে এগিয়ে নিয়ে আসলে ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে তা অসুবিধা হবে বলে তাঁরা মনে করছেন।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

স্কুলের অধ্যক্ষ ফাদার ড. মারিয়া জোসেফ সাভারিয়াপ্পান জানিয়েছেন, ছুটির সময় অনলাইন ক্লাস করা হলে তা বিগত দিনের কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ছাত্রছাত্রীদের ওপর মধ্যে একটি বিশেষ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে। এজন্যই তাঁরা চাইছেন বিকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত্রি সাড়ে দশটা বা এগারোটা পর্যন্ত স্কুল চালু করতে গরমের এই বিশেষ কয়েকটি মাসে। এদিকে, স্কুলের কর্তৃপক্ষের এই আবেদনে কার্যত দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছেন। অভিভাবকরা ছাত্রছাত্রীদের রাত্রে বাড়ি ফেরা এবং তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন।

Advertisement

 

আর এই ঘটনায় চাঞ্চল্য অবশ্যই অভিভাবক মহলের মধ্যে দেখা দিয়েছে।

Advertisement