১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

জঙ্গলমহলে বন্ধের প্রভাব

সঞ্জয় ঘটক, সারেঙ্গা :জেলার জঙ্গল মহল সারেঙ্গাতে বন্ধের প্রভাব পড়লো বেশ কিছুটা, বন্ধ সফল বলে দাবী বন্ধ সমর্থক বামেদের। কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠন ও ফেডারেশন সমূহের ডাকে সারা দেশ ব্যাপী সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল দুদিন ব্যাপী অর্থাৎ ২৮ ও ২৯ শে মার্চ ,আজ ছিল ধর্মঘটের প্রথম দিন।এই ধর্মঘটের মূল দাবি ছিল শ্রমিক বিরোধি শ্রম কোড বাতিল করা ,কেন্দ্র ও রাজ্য নয়া পরিবহন নীতি বাতিল করা , পেট্রোল, ডিজেল,ও রান্নার গ্যাসের দাম কমাতে হবে,সামাজিক সুরক্ষা পূর্বের ন্যায় চালু করতে হবে,রেল,তেল,খনি,প্ৰতিরক্ষা রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ক্ষেত্র বিক্রি ও বিলগ্নি করার প্রতিবাদে । সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অধিকাংশ দোকান পাট ছিলো বন্ধ, তবে সরকারী দফতর, স্কুল ছিল প্রায় স্বাভাবিক। রাস্তায় চোখে পড়েনি বেসরকাররী বাস। তবে কিছু প্রাইভেট গাড়ী চোখে পড়েছে। সকাল থেকে লরি চলাচল কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তার সংখ্যাও বেশ কিছুটা বেড়েছে। অন্যদিকে বনধ সফল করতে সকাল থেকেই পথে নামে ধর্মঘটীরা। সকালেই সারেঙ্গা সিপিএমের দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিল করে সারেঙ্গা এলাকা প্রদক্ষিন করে বাম কর্মীরা।

 

Advertisement

 

এরপর সারেঙ্গা রাস্তায় ব্যাপী চলে মিছিল। সেই সময় রাস্তায় চলে আসে একটি লরি তাকে আটকানোর চেষ্টা করেন ধর্মঘটীরা,ফলে পুলিশের সাথে শুরু হয় বচসা। পুলিশ তাদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে,পরে সারেঙ্গা বিডিও অফিসের মূল দরজার সামনে বসে বিক্ষোভ দেখিয়ে শ্লোগান দিতে থাকেন বন্ধ সমর্থনকারীরা।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

যদিও এদিন সমস্ত সরকারী অফিস,স্কুল সহ অনান্য অফিস ছিল অন্য দিনের মতোই প্রায় স্বাভাবিক। তবে এদিন রাস্তায় মানুষের আনাগোনা ছিল অনেক কম।

Advertisement