১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

বাঁকুড়া পৌরসভার সামনে বিক্ষোভ

পাপিয়া বারুই :আজ বাঁকুড়া পৌরসভার সামনে সীটু ও এআইটিইউসির পক্ষ থেকে অবস্থান বিক্ষোভ করা হয়। তাঁরা পৌরসভা কর্মীদের সরকারী আদেশমতে ন্যুনতম বেতন অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ীকরণ সহ বিভিন্ন বিষয়ে বাঁকুড়া পৌরসভার সামনে পাঁচ ঘন্টা অবস্থান বিক্ষোভ করেন । এই বিষয়ে বাঁকুড়া জেলা পৌর শ্রমিক কর্মচারীর জেনারেল সেক্রেটারি অশোক ব্যানার্জি বলেন যে এই পুরসভাতে কর্মরত শ্রমিকদের ন্যূনতম১৬৫০০ টাকা বেতন দিতে হবে অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ী করণ করতে হবে।

তাঁর অভিযোগ যে ২০১১ এর পর থেকে কোনো নতুন চাকরি হয় নি যদিও এই বিষয়ে নির্দিষ্ট সরকারী নিয়ম আছে। তিনি বলেন যে তাঁরা চান যে এই সমস্যাগুলির বিষয়ে বাঁকুড়া পৌরসভা শীঘ্রই কোনো সিদ্ধান্ত নেন।তিনি বলেন যে বর্ধিত হারে পেনশন পাওয়া যাচ্ছে ন।তিনি জানান যে এস ডি ও এবং জেলা শাসককে বলেও কোনো লাভ হয়নি। তাই আজ তাঁরা বাধ্য হয়ে পাঁচ ঘন্টার অবস্থান বিক্ষোভ করেন। অন্যদিকে এআইটিইউসি বাঁকুড়া জেলা সহ সম্পাদক ভাস্কর সিংহ জানান যে আজ তাঁদিগে যে বিষয়ে আন্দোলন করতে হচ্ছে তা অত্যন্ত লজ্জার। তিনি কটাক্ষ করে বলেন যে সরকার নিজের বানানো নিয়ম নিজেই মানছে না ।

Advertisement

তিনি বলেন যে জেলা শাসক দপ্তরে কর্মরত অস্থায়ী কর্মীদেরও পিএফ মিলছে না যদিও সরকারের নিয়মে এটি তাদের পাওয়ার কথা। তিনি বলেন যে মানুষ রিটায়ার করছে কিন্তু নতুন লোক নেওযা হচ্ছে না। তিনি বলেন এটি অত্যন্ত লজ্জার যে একটি সভ্য সমাজে নায্য দাবিগুলির জন্য আন্দোলন করতে হচ্ছে। তিনি বলেন যে আজকের এই আন্দোলন বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুরের পুর কর্মীরা এসেছেন। তিনি বলেন যে যদি তাঁদের দাবি দাওয়া মানা না হয় তাহলে তাঁরা ধর্মঘটের পথে হাঁটতে বাধ্য হবেন। তিনি আরও জানান যে সোনামুখীর কর্মীরা এখনও সেই অবস্থায় পৌঁছতে পারে নি যে তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভ করবেন।

অন্যদিকে বাঁকুড়া পৌরসভার প্রশাসক অলকা সেন মজুমদার বলেন যে তাঁরা এই বিক্ষোভকারীদের করা শুনলেন। শীঘ্রই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি বলেন যে আন্দোলনের অধিকার সকলেরই আছে তাই এই বিষয়ে তিনি যথেষ্ট সহমর্মিতার সাথে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলবেন।

Advertisement