৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

বিশ্ব রোগী সুরক্ষা দিবস পালন করলো পিয়ারলেস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

পারিজাত মোল্লা : শনিবার সারাদিন ব্যাপি সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের এক বহুতলে এক সভাগৃহে পিয়ারলেস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সহযোগীদের নিয়ে রোগীদের স্বার্থে এক আন্তজার্তিক জনসচেতনতামূলক সেমিনারের আয়োজন করে থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এর যোগাযোগ অনুসারে ১৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব রোগী সুরক্ষা দিবস হিসাবে পালিত হচ্ছে। এই বছরের থিম হল “রোগীর নিরাপত্তার জন্য রোগীদের বিজড়িত করা” এবং স্বাস্থ্যসেবায় রোগীদের সুরক্ষার ক্ষেত্রে তাদের ভূমিকা বাড়ানোর বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। গত বছরের মতো, কলকাতার পিয়ারলেস হাসপাতালের পরিচালনায় একটি একদিনের সম্মেলন ‘মেডিসেফকন’ আয়োজন করা হয়। ‘মেডিকেশন এর সুরক্ষার জন্য রোগীদের বিজড়িত করা’ থিম নিয়ে ফার্মাসিস্ট, ডাক্তার এবং নার্সদের মধ্যে ক্লিনিকাল অনুশীলনে ওষুধের সুরক্ষার উন্নতিতে রোগীদের ভূমিকা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এই কনফারেন্স হয়।নিম্নলিখিত অধিবেশনগুলি ভারত ও বিদেশের নেতৃস্থানীয় ডাক্তার, ফার্মাকোলজিস্ট, নার্স এবং মেডিকোলিগ্যাল বিশেষজ্ঞরা পরিচালনা করেন।

১. ক্রিটিক্যাল কেয়ার অনুশীলনে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা (অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল স্টুয়ার্ডশিপ)।২. পেডিয়াট্রিক অনুশীলনে বিরল রোগে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।৩. অনকোলজি অনুশীলনে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।৪.গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি অনুশীলনে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।৫. ইনসুলিন ব্যবহারে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

৬. কার্ডিওলজিতে ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।৭. ডিসফ্যাজিয়ায় ওষুধের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা।৮. হাসপাতালে রোগীর ব্যস্ততা: সমস্যা এবং সুযোগ- সুবিধা। এই সম্মেলনে সিনিয়র ডাক্তার, নার্স, মেডিক্যাল ফার্মাকোলজিস্ট এবং ফার্মাসিস্টরা ক্লিনিকাল অনুশীলনের সময় ওষুধের সুরক্ষা সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেন হাইব্রিড মোডে (অনলাইন এবং অফলাইন), যাতে বিশ্বব্যাপী সর্বাধিক স্বাস্থ্যসেবা কর্মী এবং রোগীরা জ্ঞান এবং তথ্য ভাগ করে নেন সম্মেলনের সময়।

Advertisement

সম্মেলনের একাডেমিক অংশীদারদের মধ্যে রয়েছে ফার্মাকোভিজিল্যান্স প্রোগ্রাম অফ ইন্ডিয়া (পি.ভি.পি.আই), আই.পি.সি, গাজিয়াবাদ ইন্ডিয়া, কিউর এস.এম.এ ফাউন্ডেশন অফ ইন্ডিয়া, পেশেন্ট একাডেমি ফর ইনোভেশন অ্যান্ড রিসার্চ, ইন্ডিয়া এবং ট্রেনড নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া (ওয়েস্ট বেঙ্গল শাখা) এবং ইন্ডিয়ান ফার্মাসিউটিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (ওয়েস্ট বেঙ্গল শাখা) বেঙ্গল শাখা) এই সম্মেলন আয়োজনে তাদের সহায়তা ও অনস্বীকার্য।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

ডাঃ নীলম ধিংরা, ইউনিট হেড, ডব্লিউ.এইচ.ও রোগীর নিরাপত্তা ফ্ল্যাগশিপ: রোগীর নিরাপত্তার এক দশক ২০২১-২০৩০, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, জেনেভা, সুইজারল্যান্ড সদয়ভাবে সম্মানিত অতিথি হতে এবং পূর্ণাঙ্গ বক্তৃতা দিতে সম্মত হয়েছে। তিনি “রোগীর নিরাপত্তার জন্য রোগীদের বিজড়িত করা” এই থিমের উপর বক্তৃতা দেন।সিঙ্গাপুর থেকে প্রফেসর (ড.) কোক টান সহ মিসেস হেলেন হাসকেল (রোগীর নিরাপত্তা আইনজীবী, ইউএসএ), মিস সু শেরিডেন (পেশেন্ট সেফটি অ্যাডভোকেট, ইউএসএ) এবং প্রফেসর (ড.) আলবার্ট উ, জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি, ইউএসএ এনাদের মত ব্যক্তিত্বকে পেয়ে খুবই খুশি উদ্যোক্তা কর্তৃপক্ষ ।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

এবং সুইডেনের কারোলিঙ্কা ইনসিটিউট থেকে প্রফেসর (ড.) সিসিলিয়া লুন্ডবর্গ আমাদের সম্মেলনের জন্য সম্মানিত আন্তর্জাতিক অনুষদ হিসেবে এবং ড. রত্না দেবী এবং ভারতের নয়াদিল্লি থেকে অধ্যাপক (ড.) সঙ্গীতা শর্মা, কলকাতার প্রখ্যাত শিশু বিশেষজ্ঞ ডা: অপূর্ব ঘোষ, ডাঃ সুভাষ টোডি, ডাঃ অশোকানন্দ কোনার, ডাঃ শুভ্রজ্যোতি ভৌমিক এবং আরও অনেক বিশিষ্ট চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত থেকে সম্মেলনকে আলোকিত করেন।কনফারেন্সে রোগীরা ডাক্তার এবং নার্সদের সাথে ওষুধ এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কিত তাদের কঠিন সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করবে। বিশেষজ্ঞরা কীভাবে এই সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠতে পারে এবং ক্লিনিকাল অনুশীলনের সময় ওষুধগুলি নিরাপদে ব্যবহার করা যেতে পারে তার সমাধানের পরামর্শ দেন এই সেমিনারে ।

Advertisement