৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

বর্ধমান ক্যারাটে ডো অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে ক্যারাটে প্রশিক্ষণ শিবির

নতুন ভোরের প্রতিবেদন : বর্ধমান ক্যারাটে-ডো এসোসিয়েশন এর আয়োজনে “অ্যাডভান্স ক্যারাটে ট্রেনিং ক্যাম্প” এবং “রেফারি সেমিনার অন ডাব্লুউ.কে.এফ. রুলস” বর্ধমানের বিসি রোডের ওপর অবস্থিত গঙ্গা কমপ্লেক্সের সঙ্গম ম্যারেজ হলে গত ৩১শে মার্চ, ২০২৪ তারিখে অনুষ্ঠিত হল।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

পূর্ব বর্ধমান জেলার ক্যারাটে খেলোয়াড়, কোচ ও বিচারকদের উন্নতির উদ্দ্যেশ্যে আয়োজিত ট্রেনিং ক্যাম্প ও রেফারি সেমিনার এ যথাক্রমে ১১০ জন ও ৩৫ জন অংশগ্রহণ করে। উল্লেখযোগ্যভাবে, মেয়েদের উপস্থিতি ছেলেদের তুলনায় ছিল অর্ধেকের থেকে একটু বেশি।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হানসি প্রেমজিত সেন, যিনি ওয়ার্ল্ড ক্যারাটে ফেডারেশন ও এশিয়ান ক্যারাটে ফেডারেশন এর “এ” গ্রেড রেফারি ও জাজ। ২০২৩ সালে হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় উনি ব্রোঞ্জ পিন সম্মান অর্জন করেন। উনি জাপান এবং ওয়ার্ল্ড ক্যারাটে ফেডারেশন থেকে ৮ম ডান ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্ত। এছাড়া, উনি গ্লোবাল সেইসিনকাই সিতো-রিউ ক্যারাটে-ডো ফেডারেশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ টেকনিকাল ডাইরেক্টর। বর্তমানে উনি হলেন ক্যারাটে ইণ্ডিয়া অরগানাইজেশন এর জয়েন্ট সেক্রেটারি এবং ক্যারাটে-ডো এসোসিয়েশন অফ বেঙ্গল এর সভাপতি। ওনার কোচিং এ বাংলার ক্যারাটেকারা ওয়ার্ল্ড ক্যারাটে ফেডারেশনের ইয়ুথ লিগে ২টি পদক জয় করেছে, এছাড়া অসংখ্য জাতীয়, সাউথ এশিয়ান, এশিয়ান ও কমনওয়েলথ ক্যারাটে প্রতিযোগীতায় পদক এনেছে। নিজে খেলোয়াড় হিসেবে উনি বিদেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন মার্শাল আর্টস প্রতিযোগীতা থেকে দেশের জন্য পদকলাভও করেছেন।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

এছাড়া, অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বর্ধমান সহযোদ্ধার জেনারেল সেক্রেটারি শ্রীমতী প্রীতিলতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

হানসি প্রেমজিত সেন বলেন, “বিশ্বে প্রতিনিয়ত ক্যারাটে ট্রেনিং পদ্ধতির এবং প্রতি বছরই ক্যারাটে খেলার নিয়মের পরিবর্তন হচ্ছে। তাই, নিজেকে আপডেট করে রাখতে, এই ধরনের ট্রেনিং ক্যাম্প ও রেফারি সেমিনার এ যোগদান করা অতিআবশ্যক।” এছাড়া উনি বলেন, “জেলায় প্রচুর প্রতিভা আছে, কিন্তু সঠিক সংস্থা বেছে না নেওয়ার জন্য তারা বহু সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।”

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

বর্ধমান ক্যারাটে-ডো এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক রেনসি দেবাশীষ কুমার মণ্ডল জানান, “বাংলা তথা ভারতের গর্ব হানসি প্রেমজিত সেন, যিনি হলেন বিশ্বখ্যাত রেফারি, কোচ ও খেলোয়াড়। ওনার মতন মহান ক্যারাটে প্রশিক্ষককে পূর্ব বর্ধমানে নিয়ে আসতে পেরে আমরা খুবই খুশি এবং গর্বিত। আমরা আশাবাদী হানসির প্রশিক্ষণে শিক্ষাপ্রাপ্ত হয়ে জেলার ক্যারাটে খেলোয়াড়েরা আগামীদিনে আরো ভালো ফল করবে।” এছাড়া, অ্যাডভান্স ক্যারাটে ট্রেনিং ক্যাম্পের পাশাপাশি পূর্ব বর্ধমানে এই সর্বপ্রথম রেফারি সেমিনার অনুষ্ঠিত হল বলে জানান দেবাশীষবাবু।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

ক্যাম্প ও সেমিনার শেষে সকল ক্যারাটে শিক্ষার্থী ও বিচারকদের প্রশংসাপত্র প্রদান করা হয়। পূর্ব বর্ধমান জেলা ক্যারাটের উন্নতির জন্য এই ধরনের কর্মসূচী আগামীদিনেও গ্রহণ করা হবে বলে জেলা ক্যারাটে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়।

Advertisement