১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

এবার গোঁজ প্রার্থী বর্ধমান দুর্গাপুর এবং বর্ধমান পূর্ব এই দুই কেন্দ্রে

নিজস্ব প্রতিনিধি : এই দুই কেন্দ্রে যথাক্রমে বিজেপির দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে নির্দল হিসাবে গোঁজ প্রার্থী এবং বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল প্রার্থী ডা. শর্মিলা সরকারের বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দিলেন আর এক শর্মিলা সরকার।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বর্ধমান দুর্গাপুর কেন্দ্রে মোট ১০জন মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

তার মধ্যে স্ক্রুটিনিতে বাতিল হয়েছেন এই কেন্দ্রের দুই প্রার্থী নির্দলের সরাভান সিং এবং গুরুচাঁদ সেনা দলের কালিদাস গড়াই। ফলে চুড়ান্ত লড়াইয়ে থাকলেন ৮জন প্রার্থী। বিজেপির একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, এই কেন্দ্রে নির্দল হিসাবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন দুর্গাপুরের বিবেকানন্দপল্লী দক্ষিণাংশের বাসিন্দা রীনা লিয়ংজি। তাঁর মনোনয়ন দাখিলের সময় তাঁর প্রস্তাবক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির মহিলা নেত্রীও। যে নেত্রী বর্ধমানের লড়াকু যুব নেতা শ্যামল রায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ট বলে জানা গেছে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে তাহলে কি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে গোঁজ প্রার্থী খাড়া করল বিজেপির একাংশ ?

 

Advertisement

 

 

Advertisement

অন্যদিকে, বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল প্রার্থী ডা. শর্মিলা সরকারের বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন বীরভূমের সাহেব ডাঙা, উষাহার এলাকার বাসিন্দা শর্মিলা সরকার। যেহেতু তৃণমূল প্রার্থীর নাম এবং নির্দল প্রার্থীর নাম একই তাই তা নিয়ে শাসকদলের দুশ্চিন্তা বেড়েছে ব্যাপকভাবেই।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

এব্যাপারে এদিন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন, আজ মনোনয়নপত্র স্কুটিনির দিন ছিল। আমাদের প্রার্থী শর্মিলা সরকারের মনোনয়নপত্র গৃহীত হয়েছে। প্রস্তাবক হিসেবে আমি উপস্থিত ছিলাম। কিন্তু এই কেন্দ্রে একই নামে এক নির্দল প্রার্থী রয়েছেন যিনি মনোনয়নপত্রে সই করেছেন শর্ম্মিলা সরকার। তাঁর ভোটার কার্ডে বানান রয়েছে ‘শর্মিলা সরকার। কোনটা ঠিক। আমাদের প্রার্থী এটা নিয়ে আপত্তি দাখিল করেছেন। যদিও শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত নির্দল প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়নি।

Advertisement