২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
Advertisement

‘ধূমকেতু’র শতবর্ষে ছায়ানট (কলকাতা)-এর বিশেষ ক্যালেন্ডার

ফারুক আহমেদ : আপামর বাঙালির প্রিয় মরমী কবি কাজী নজরুল ইসলাম সম্পাদিত পত্রিকা ‘ধূমকেতু’র শতবর্ষে, ছায়ানট (কলকাতা)-এর বিনম্র শ্রদ্ধার্ঘ্য ‘শতবর্ষে ধূমকেতু’ নামাঙ্কিত মূল্যবান ক্যালেন্ডার প্রকাশিত হল। মূল-ভাবনা ও তথ্য-সংগ্রহে সোমঋতা মল্লিক, বিন্যাস-নির্মাণ ও সৃজনে নন্দগোপাল ত্রিপাঠী। ক্যালেন্ডারের প্রতিটি পাতায় থাকছে ‘ধূমকেতু’ নিয়ে নানা বিশিষ্ট মানুষের উক্তি, সাথে নজরুলের জীবনের বিভিন্ন বয়সের অসাধারণ সব ছবি।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

কাজী নজরুল ইসলামের একক সম্পাদনায় ২৬ শ্রাবণ, ১৩২৯ (১১ আগস্ট, ১৯২২) শুক্রবার সপ্তাহে দুবার প্রকাশের ঘোষণা দিয়ে অর্ধ-সাপ্তাহিক ‘ধূমকেতু’ পত্রিকার আত্মপ্রকাশ হয়। অধিকাংশ সংখ্যাই শুক্রবার ও মঙ্গলবার প্রকাশিত হয়েছে, পত্রিকার পৃষ্ঠার আকৃতি ছিল ক্রাউন ফোলিও (১৫ ইঞ্চি × ২০ ইঞ্চি)। প্রথম সংখ্যা ছিল ১৬ পৃষ্ঠার। প্রতি সংখ্যার দাম ছিল ১ আনা। দেশবাসীকে স্বাধীনতা ও মানবতার বিপ্লবী মন্ত্রে উজ্জীবিত করাই ছিল পত্রিকাটির লক্ষ্য। চট্টগ্রামের হাফিজ মাসউদ আহমদের অর্থানুকূল্যে প্রকাশিত এ পত্রিকার সম্পাদক, সারথি ও স্বত্বাধিকারী ছিলেন কাজী নজরুল ইসলাম। প্রথম থেকে সপ্তম সংখ্যা পর্যন্ত সম্পাদক হিসেবে, অষ্টম সংখ্যা থেকে সারথি হিসেবে এবং ছাব্বিশ সংখ্যা থেকে প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে কাজী নজরুল ইসলাম-এর নাম মুদ্রিত হয়। পত্রিকার মুদ্রাকর ও প্রকাশক আফজাল-উল হক, কর্মসচিব বা ম্যানেজার ছিলেন শান্তিপদ সিংহ। ঠিকানা ৩ নং কলেজ স্কয়ার, কলিকাতা, সপ্তম সংখ্যার পর অফিস চলে যায় ৭ প্রতাপ চাটুয্যে লেনে। ‘ধূমকেতু’তে কাজী নজরুল ইসলাম মানুষের স্বাধীনতা, সাম্য ও মুক্তির আকাঙ্ক্ষাকে ভাস্বর করে দুরন্ত আবেগে যেসব সম্পাদকীয় নিবন্ধ, বিবৃতি ও কবিতা লিখেছিলেন তা পাঠক সমাজকে আলোড়িত করেছিল। ‘ধূমকেতু’তে প্রকাশিত কাজী নজরুল ইসলাম-এর গদ্য রচনাগুলো পরে ‘দুর্দিনের যাত্রী’ ও ‘রুদ্র মঙ্গল’ গ্রন্থে এবং কবিতা গুলো ‘বিষের বাঁশী’ ও ‘ভাঙার গান’ কাব্যগ্রন্থে সংকলিত হয়। (তথ্যসূত্র: নজরুল তারিখ অভিধান, মাহবুবুল হক)

Advertisement

 

 

Advertisement

 

‘নজরুলের ধূমকেতু’ গ্রন্থে সেলিনা বাহার জামান সম্পাদকীয়তে লিখেছেন- “প্রথম পৃষ্ঠায় কাগজের ওপর দিকে সৌরমন্ডলের ছবি, তাতে ধূমকেতু আঁকা। সবই কালো কালিতে ছাপা। তার নীচে বড় হরফে লেখা সম্পাদক, কাজী নজরুল ইসলাম। আফজালুল হক কর্তৃক মুদ্রিত ও প্রকাশিত হয়েছিল ‘ধূমকেতু’। ছাপা হয়েছিল মেটকাফ প্রেসে, যার ঠিকানা-৭৯ বলরাম দে স্ট্রিট, কলিকাতা।

Advertisement

 

‘ধূমকেতু’র বয়স হয়েছিল ৫ মাস ১৬ দিন। প্রথম সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছিল ১৯২২ সালের ১১ আগস্ট, বাংলা শ্রাবণ ১৩২৯। শেষ সংখ্যা ‘ধূমকেতু’র তারিখ ১৩ মাঘ, ১৩২৯ সাল, ২৭ জানুয়ারি, ১৯২৩। ধূমকেতুর মোট ৩২টি সংখ্যা বের হয়েছিল।

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

‘ধূমকেতু’ নানা কারণে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য:

 

Advertisement

১. ‘ধূমকেতু’ কাজী নজরুল ইসলাম সম্পাদিত প্রথম পত্রিকা যার উদ্যোক্তা এবং মালিক ছিলেন কাজী নজরুল ইসলাম নিজেই।

 

Advertisement

২. ‘ধূমকেতু’ পত্রিকায় বাংলা ভাষায় কাজী নজরুল ইসলামই প্রথমে ভারতের পূর্ণ স্বাধীনতা দাবী করেন।

 

Advertisement

৩. ‘ধূমকেতু’ পত্রিকার ১২ নম্বর সংখ্যায় অর্থাৎ ২৬ সেপ্টেম্বর, ১৯২২ ‘আনন্দময়ীর আগমনে’ নামক একটি প্রচ্ছন্ন রাজনৈতিক কবিতা প্রকাশিত হয়। এই কবিতা লেখা ও ছাপার জন্য পুলিশ ধূমকেতু কার্যালয়ে হানা দেয় ৮ নভেম্বর, ১৯২২। আর কাজী নজরুল ইসলাম গ্রেফতার হন ২৩ নভেম্বর, ১৯২২ শহর কুমিল্লায়। কবি কারারুদ্ধ হবার পর অমরেশ কাঞ্জিলাল ‘ধূমকেতু’ বের করেন।”

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

যাঁরা ‘প্রিন্টেড ডেস্ক ক্যালেন্ডার’ হিসেবে এটি সংগ্রহ করতে চান (ডেলিভারি শুধুমাত্র ভারতের মধ্যেই সীমাবদ্ধ), তাঁরা আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বিশদ তথ্যের জন্য হোয়াটসঅ্যাপে (+ 91 9836239031) যোগাযোগ করতে পারেন ছায়ানট (কলকাতা) কর্তৃপক্ষের সাথে। মূল্য ১৭০ টাকা। ডেলিভারি চার্জ অতিরিক্ত।

Advertisement