৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

রায়পুর বালক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭৫ তম বর্ষে অমৃতি উদযাপন ও মিলন মেলা

সৌমি মন্ডল :রাইপুর বালক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭৫ তম বর্ষে অমৃত জয়ন্তী উদযাপন ও মিলন মেলা অনুষ্ঠানের সূচনা হয় । বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এলাকার বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সমাজসেবী ডাক্তার শ্যামল কুমার দে এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বর্ষিয়ান প্রাক্তন ছাত্র অদ্বৈত লাহা, কালাচাঁদ দত্ত, শিক্ষক শিক্ষিকা বৃন্দ ও বিশিষ্ট মানুষজন।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

এরপর বিকেলে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ছাত্র-ছাত্রী অভিভাবক অভিভাবিকা অতিথিবৃন্দ সহ অতিথি রা অংশ নেন পরে বিকেলে বিদ্যালয়ের অমৃত জয়ন্তী বর্ষের স্মারক তোরণ ফিতে কেটে উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের খাদ্য সরবরাহ দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী শ্রীমতি জ্যোৎস্না মান্ডি। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর ও মা সারদামণি মূর্তিতে মাল্যদান করেন যথাক্রমে জ্যোৎস্না মান্ডি, অদ্বৈত লাহা ও ডাক্তার শ্যামল কুমার দে ।এরপর মূল অনুষ্ঠান শুরু হয় উদ্বোধনী মঞ্চে প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে ।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

প্রদীপ প্রজ্বলন করেন মন্ত্রী জ্যোৎস্না মাণ্ডী,বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা রাইপুর বিধানসভার বিধায়ক মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু, জাতীয় শিক্ষক জগবন্ধু মাহাতো ,শিক্ষারত্ন প্রাপ্ত শিক্ষক পরীক্ষিত কামিল্যা, কৌশিক চট্টোপাধ্যায়, সাধন মন্ডল সমাজসেবী গৌতম বিশ্বাস, শ্যামল কর ,অদ্বৈত লাহা ,কালাচাঁদ দত্ত সহ বিশিষ্ট মানুষজন অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অর্ধেন্দু মুখার্জি বর্তমান বিদ্যালয়ের অবস্থা তুলে ধরেন ও উপস্থিত আধিকারিকদের কাছে একটি বিদ্যালয় গৃহ নির্মাণের আবেদন জানান আবেদনে সাড়া দিয়ে বিধায়ক ও মন্ত্রী বলেন একটি শ্রেণিকক্ষ আমরা যত শীঘ্র সম্ভব করে দেওয়ার চেষ্টা করব। মন্ত্রী জ্যোৎস্না মান্ডি বলেন আজকের দিনে নারীদের সচেতন হতে হবে ও ঘুরে দাঁড়াতে হবে মেয়েরা কোন অংশে কম নয়। অনুষ্ঠানের সাফল্য কামনা করে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ তাদের মূল্যবান বক্তব্য রাখেন। শিক্ষক রাধামাধব মুখার্জির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অর্ধেন্দু মুখার্জি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

 

Advertisement

 

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীসহ সারেঙ্গা মিউজিক কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকদের মন জয় করে নেন। এদিনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের ক্যালেন্ডার ও একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়।

Advertisement