১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

সোনাগারা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচনে আস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হলো

সৌমি মন্ডল :বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফলে নির্দল সমর্থিত সদস্যদের নিয়ে রাইপূর ব্লকের সনাগারা গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল বিরোধীরা দখল করেছিল সিপিএম ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা ও নির্দল মিলে ।সেই পঞ্চায়েত গঠনের পর থেকে বিভিন্ন কারণে পঞ্চায়েতের উন্নয়ন থমকে ছিল পঞ্চায়েতের উন্নয়ন থমকে থাকা সাধারণ মানুষ মেনে নিতে পারেননি তাই নির্দল সমর্থিত দুই সদস্য সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ায় পঞ্চায়েত বোর্ড ভেঙ্গে যায় ।

প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন সদস্য সদস্যরা। এরপর প্রধান লালু হাঁসদা পদত্যাগপত্র পেশ করেন সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক এর কাছে গত ২৪ শে নভেম্বর। বৃহস্পতিবার সোনা গাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচনে আস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হলো ।এই আস্থাভোটে ৮জন সদস্যের মধ্যে ৮ জন ই উপস্থিত ছিলেন ।তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে পাঁচজন সদস্য হওয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় তৃণমূল কংগ্রেস সদস্য সদস্যরা জয়লাভ করেন এবং সদস্য ভজন কুমার মন্ডল কে প্রধান নির্বাচন করে পঞ্চায়েত চালানোর দায়িত্ব অর্পন করেন।এ ব্যাপারে ভজন কুমার মন্ডল বলেন দীর্ঘ তিন বৎসর আমাদের পঞ্চায়েতের উন্নয়ন থমকে ছিল বিরোধীরা কোনো কাজ করেনি এবার আমরা উন্নয়নের লক্ষ্যে সকলকে নিয়ে কাজ করে যাব ।

Advertisement

পঞ্চায়েত সদস্য প্রশান্ত কুমার মন্ডল বলেন বিগত দিনে যে বোড ছিল সেই বোর্ড কোন কাজ করতে পারেনি তাই উন্নয়ন থমকে ছিল এবার আমরা উন্নয়ন এগিয়ে নিয়ে যাব। আজকে সোনাগাড়াগ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান নির্বাচিত হওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে বিধায়ক মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু বলেন বিগত তিন বছর ধরে এলাকার কোনো উন্নয়ন হয়নি ।বিগত বোর্ড কোন উন্নয়ন করতে পারেনি ।পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মা-মাটি-মানুষের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনমুখি প্রকল্প গুলি ব্যহত হয়েছে।

মানুষ বিভিন্ন পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন আমরা আগামী জানুয়ারি মাসে দুয়ারে সরকার প্রকল্পে এলাকার মানুষের প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধাগুলো পাইয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।বোর্ড গঠন উপলক্ষে এখানে হাজির হয়েছিলেন বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা রায়পুর বিধানসভার বিধায়ক মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু ,রায়পুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জগবন্ধু মাহাত,সোনা গাড়া অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি পবিত্র নাথ টুডু ,সুশান্ত মাহাতো, ষষ্ঠী চরণ হালদার, বাপ্পাদিত্য মন্ডল,সহ তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থিত অগণিতমানুষ। আজকে বোর্ড গঠনের পর প্রধানসহ উপস্থিত সদস্য সদস্যাদের মালা পরিয়ে অভিনন্দন জানান রায়পুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জগবন্ধু মাহাত।

Advertisement

পরে বাদ্যযন্ত্র সহকারে একটি মিছিল সারা ঢেঙ্গাআম গ্রাম প্রদক্ষিণ করে ।বর্তমান গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড এর সদস্যরা হলেন ভজন কুমার মন্ডল (প্রধান) সদস্যা কূনামি সরেন হাঁস দা ,জয়ন্তী সরদার , সদস্য প্রশান্ত কুমার মন্ডল, অজিত সর্দার। আজকের প্রধান নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ের সামনে পুলিশি নিরাপত্তা ছিল লক্ষণীয় ।টানটান উত্তেজনা থাকায় পুলিশের উপস্থিতি ছিল অনেক বেশি ।

পুরো সময়টা উপস্থিত থেকে সকলকে সাহস যুগিয়েছেন খাতড়া মহকুমা পুলিশ আধিকারিক কাশীনাথ মিস্ত্রি। রায়পুর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক এর পক্ষ থেকে প্রতিনিধিরা কার্যালয়ে গিয়ে সদস্য সদস্যাদের সম্মতিপত্র নিয়ে আসেন। শান্তি-শৃঙ্খলা যাতে ঠিক থাকে তার জন্য ব্যাপক পুলিশি ব্যবস্থা ছিল।

Advertisement