৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Advertisement

আন্তর্জাতিক সমবায় দিবসে ক্ষুদ্র ব্যবসার প্রভাব এবং সুযোগসুবিধা প্রদর্শন

পাপিয়া বারুই,বাঁকুড়া :আন্তর্জাতিক সমবায় দিবসে ক্ষুদ্র ব্যবসার প্রভাব এবং সুযোগসুবিধা প্রদর্শন

 

Advertisement

 

আন্তর্জাতিক সমবায় দিবস উপলক্ষে, সুইচঅন ফাউন্ডেশন বাঁকুড়ার DRDC কনফারেন্স হলে এই অঞ্চলের নারী উদ্যোক্তাদের একত্রিত করে, অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র এবং মাঝারি উদ্যোগগুলির গুরুত্বপূর্ণ অবদান উদযাপন করেছে। এই প্রভাববিস্তারকারী কর্মসূচির মাধ্যমে সরকারি প্রকল্প এবং উদ্যোগ সম্পর্কে মূল্যবান আলোচনা করা হয়েছে, যা এই অঞ্চলের উদীয়মান নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সহায়ক ও ক্ষমতায়ক পরিবেশ গড়ে তুলবে।

Advertisement

 

দেবজিৎ বোস ,প্রোজেক্ট ডিরেক্টর, DRDC এবং

Advertisement

চন্দন দাস জেনারেল ম্যানেজার, ডিস্ট্রিক্ট ইন্ডাস্ট্রি সেন্টার প্রমুখ অতিথিবর্গ এই অনুষ্ঠানের উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা কো অপারেটিভ বা সমবায় এর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন যা উদীয়মান নারী উদ্যোক্তাদের বিকাশের জন্য একটি সহায়ক এবং ক্ষমতায়নকারী পরিবেশ গড়ে তুলতে সহায়তা করবে। উইভার কো-অপারেটিভ সোসাইটি, রামপুর মহামায়া খাদি গ্রামোদয় সংঘ খাদি সোসাইটি ইত্যাদির মতো বিভিন্ন সমবায় সমিতি থেকে প্রায় ৪০ জন মহিলা আন্তর্জাতিক সমবায় দিবস উদযাপনে যোগ দিয়েছিলেন।

 

Advertisement

শ্রী দেবজিৎ বোস প্রোজেক্ট ডিরেক্টর, DRDC বলেন, সমবায়গুলি হল আমাদের স্থানীয় অর্থনীতির মেরুদণ্ড। এগুলি নারী উদ্যোক্তাদের সহযোগিতা, উদ্ভাবনী চেতনা, প্রয়োজনীয় সংস্থান এবং সহায়তা উপলব্ধ করানোর জন্য একটি মঞ্চ হিসাবে কাজ করে। আমি সাধুবাদ জানাই সুইচঅন ফাউন্ডেশনকে, এমন একটি প্রভাববিস্তারকারী অনুষ্ঠানের আয়োজনের জন্য, যেটি মুখ্য স্টেকহোল্ডারদের একত্রিত করে ক্ষুদ্র ব্যবসার গুরুত্বপূর্ণ অবদানগুলিকে তুলে ধরেছে।

 

Advertisement

সুইচঅন ফাউন্ডেশনের জেনারেল ম্যানেজার, সুরজিৎ চক্রবর্তী বলেন, পর্যাপ্ত রসদ এবং সহায়তা প্রদান করে আমরা সমবায় খাতে উন্নয়ন এবং উদ্ভাবনের জন্য সীমাহীন সুযোগের দ্বার উন্মুক্ত করতে পারি। আমাদের লক্ষ্য হল স্থানীয় উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন উপলব্ধ সুযোগ সম্পর্কে সচেতন করা এবং তাদের ব্যবসা শুরু ও প্রসারিত করার জন্য সঠিক জ্ঞান ও পর্যাপ্ত সরঞ্জাম সরবরাহ করা।

এই অনুষ্ঠানের মুখ্য বৈশিষ্ট্য ছিল যে এখানে সফল নারী উদ্যোক্তাদের সাফল্যের কাহিনী তুলে ধরে তাদের উদ্ভাবনী পণ্য এবং পরিষেবাগুলি প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এই প্রদর্শনীর লক্ষ্য ছিল নারী উদ্যোক্তাদের তাদের ব্যবসায়িক উচ্চাকাঙ্ক্ষা অনুসরণ করতে অনুপ্রাণিত এবং উৎসাহিত করা। অংশগ্রহণকারীরা পারস্পরিক আলোচনাপর্বের মাধ্যমে সরাসরি সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে যুক্ত হওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন। এই আলোচনাপর্বগুলিতে বিভিন্ন সরকারি প্রকল্প, যেমন ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড, KVIC খাদি অ্যান্ড ভিলেজ ইন্ডাস্ট্রি কমিশন, মাইক্রো অ্যান্ড স্মল এন্টারপ্রাইজ ক্লাস্টার ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম MSE-CDP সম্পর্কে মূল্যবান তথ্য প্রদান করা হয়েছিল, যা অংশগ্রহণকারীদের জন্য একটি সহায়ক পরিবেশ তৈরি করে।

Advertisement

 

চন্দন সেন জেনারেল ম্যানেজার, ডিস্ট্রিক্ট ইন্ডাস্ট্রি সেন্টার বলেন, এই অনুষ্ঠানটি অর্থনৈতিক উন্নয়নে সমবায়গুলির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিক তুলে ধরেছে। একটি সহায়ক পরিবেশ তৈরি করে এবং সরকারি প্রকল্পগুলির উপলব্ধতা সহজতর করে, আমরা ক্ষুদ্র ব্যবসাগুলিকে নতুন উচ্চতায় পৌঁছাতে সক্ষম করতে পারি।

Advertisement

সমবায় দিবস উদযাপন, স্থানীয় অর্থনীতিতে ক্ষুদ্র ব্যবসার ভূমিকাকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করেছে। এটি নারী উদ্যোক্তাদের সফল হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় জ্ঞান এবং রসদ সরবরাহ করেছে।

Advertisement